মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

 

  • পর্যায়ক্রমে জেলায় ২৫/৫/২/১ কিউসেক ক্ষমতা সম্পন্ন সেচযন্ত্র ক্ষেত্রায়নের মাধ্যমে সেচযোগ্য শতভাগ জমিতে ভূউপরিস্থ পানির সাহায্যে সেচ প্রদান করা।
  • আধুনিক ও নিয়ন্ত্রিত সেচ ব্যবস্থা (ব্যারিড পাইপ/স্প্রিংলার সেচ পদ্ধতি) স্থাপনের মাধ্যমে চাষযোগ্য সকল জমিকে নিয়ন্ত্রিত সেচ সুবিধার আওতায় আনা।
  • সেচ খাল পুনঃ খনন/সংস্কার করার মাধ্যমে ভূউপরিস্থ পানির প্রাপতা বাড়ানো  করা।
  • নিস্কাশন খাল পুনঃ খনন/সংস্কার করার মাধ্যমে সকল জলাবদ্ধ কৃষি জমির  জলাবদ্ধতা দূরীকরণের মাধ্যমে চাষাবাদের আওতায় নিয়ে আসা।
  • বিভিন্ন সেচ অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে আধুনিক ও নিয়ন্ত্রিত পানি ব্যবস্থা পদ্ধতি গড়ে তোলা।

প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কৃষকদের আধুনিক, দক্ষ  ও টেকসই সেচ ও যান্ত্রিক চাষাবাদ পদ্ধতি এবং মাঠ পর্যায়ে পানি ব্যবস্থা বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ করে তোলা।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter